আজকের চাকরির পত্রিকা । গাইবান্ধা জেলা পরিষদে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি ২০২৪

আজকের চাকরির পত্রিকাঃ গাইবান্ধা জেলা পরিষদ নতুন নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছে। এই প্রতিষ্ঠানটি পাঁচ পদে 5 জনকে নিয়োগ দেবে। আবেদনকারীকে অবশ্যই বাংলাদেশের নাগরিক হতে হবে। বাংলাদেশের যেকোনো জেলার লোকজন এই পদে আবেদন করতে পারবে। নারী পুরুষ উভয়ই আবেদন করতে পারবে। আগ্রহী প্রার্থীরা অনলাইনে আবেদন করতে পারবেন। 

 গাইবান্ধা জেলা পরিষদে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি ২০২৪

পদের নাম :হিসাব রক্ষক
পদ সংখ্যা : ০১ টি।
শিক্ষাগত যোগ্যতা :(ক) কোনো স্বীকৃত বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বাণিজ্য বিভাগে ২য় শ্রেণীতে স্নাতক থাকতে হবে বা সমমানের ডিগ্রী থাকতে হবে; (খ) স্প্রেডসিট, ওয়ার্ড প্রসেসিং, প্রেজেন্টেশন এবং বেসিক কম্পিউটার ট্রাবলসুটিং এ দক্ষতা।
বেতন স্কেল : স্কেল ১১০০০-২৬৫৯০ গ্রেড নং-১৩।
পদের নাম :উচ্চমান সহকারী
পদ সংখ্যা :০১ টি।
শিক্ষাগত যোগ্যতা :যে কোন স্বীকৃত বিশ্ববিদ্যালয় হতে অনার্স/স্নাতক অথবা সমমানের ডিগ্রী এবং কম্পিউটার ব্যবহারের দক্ষতা থাকতে।
বেতন স্কেল :স্কেল ১০২০০-২৪৬৮০ গ্রেড নং- ১৪
পদের নাম :অফিস সহকারী কম্পিউটার অপারেটর
পদ সংখ্যা :০১ টি।
শিক্ষাগত যোগ্যতা :যে কোন শিক্ষাবোর্ড হতে উচ্চ মাধ্যমিক পাশ বা সমমানের শিক্ষাগত যোগ্যতা এবং ইংরেজি প্রতি মিনিটে ৪০ শব্দ এবং বাংলায় প্রতি মিনিটে ৩০ শব্দ টাইপ করার যোগ্যতাসহ কম্পিউটার চালনায় প্রয়োজনীয় দক্ষতা থাকতে হবে

বেতন স্কেল : স্কেল ৯৩০০-২২৪৯০ গ্রেড নং- ১৬।

পদের নাম : মেশিন/ডুপ্লিকেটিং মেশিন অপারেটর-কাম দপ্তরি
পদ সংখ্যা : ০১ টি।
শিক্ষাগত যোগ্যতা :মাধ্যমিক স্কুল সার্টিফিকেট অথবা সমমান পরীক্ষায় উত্তীর্ণ এবং ফটোকপি মেশিন অপারেটিং কাজের অভিজ্ঞতা থাকতে।
বেতন স্কেল : স্কেল ৮৮০০-২১৩১০ গ্রেড নং- ১৮।

পদের নাম : অফিস সহায়ক (এমএলএসএস)
পদ সংখ্যা : ১ টি।
শিক্ষাগত যোগ্যতা : অষ্টম শ্রেণি পাস/সমমান পরীক্ষায় উত্তীর্ণ।
বেতন : স্কেল ৮২৫০-২০০১০ গ্রেড নং- ২০।

১। আবেদনকারীকে বাংলাদেশের প্রকৃত নাগরিক হতে হবে।

২। আবেদনকারীকে সরকার কর্তৃক চাকুরির আবেদনে স্ব হস্তে লিখিত আবেদন করতে হবে। উক্ত আবেদন ফরমেট জেলা পরিষদ, গাইবান্ধা ওয়েবসাইট (www.zpgaibandha.gov.bd) এবং জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইট (www.mopa.gov.bd) বা (www.forms.gov.bd) এ পাওয়া যাবে।

৩।আবেদনকারীর বয়সসীমা ৩০/০৬/২০২৪ খ্রিঃ তারিখে ১৮-৩০ বছরের মধ্যে হতে হবে। তবে বীরমুক্তিযোদ্ধা/শহীদ মুক্তিযোদ্ধার পুত্র/কন্যা, পুত্র/কন্যার পুত্র/কন্যা এবং শারীরিক প্রতিবন্ধীদের ক্ষেত্রে সর্বোচ্চ বয়স ৩২ বছর পর্যন্ত শিথিলযোগ্য। বয়সের ক্ষেত্রে কোন এফিডেভিট গ্রহণযোগ্য হবে না।

.৪। আবেদনপত্রে নিম্নলিখিত তথ্যাদি উল্লেখ থাকতে হবে:-

(ক) প্রার্থীর নাম (খ) পিতা/স্বামীর নাম (গ) মাতার নাম (ঘ) স্থায়ী ঠিকানা (ঙ) বর্তমান ঠিকানা (চ) জন্ম তারিখ (ছ) ৩০/০৬/২০২৪ তারিখে বয়স (জ) জাতীয়তা (ঝ) শিক্ষাগত যোগ্যতা (ঞ) মোবাইল নম্বর (ট) কোটা (ঠ) অভিজ্ঞতা (যদি থাকে)।

৫।মুক্তিযোদ্ধা/শহীদ মুক্তিযোদ্ধার সন্তান/পোষ্য হলে মুক্তিযোদ্ধা হিসাবে বাংলাদেশ সরকার কর্তৃক অনুমোদিত ও স্বীকৃত সনদের ফটোকপি প্রথম শ্রেণীর গেজেটেড কর্মকর্তা কর্তৃক সত্যায়িত করে দাখিল করতে হবে। মুক্তিযোদ্ধা কোটায় আবেনদকারীকে;

(ক) যদি কেউ মুক্তিযোদ্ধা বা শহীদের সন্তান হয়, তাহলে তারা তাদের পিতা বা মাতার জন্মানুযায়ী মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয় হতে প্রদত্ত সনদপত্রের সত্যায়িত কপি দাখিল করতে হবে, যা সরকারের সর্বশেষ নীতিমালা অনুযায়ী হবে।

(খ) মুক্তিযোদ্ধা/শহীদ মুক্তিযোদ্ধার পুত্র-কন্যার পুত্র-কন্যা হিসেবে চাকুরী প্রার্থীকে চাকুরীর আবেদনপত্রের সাথে তাদের পিতার পিতা/পিতার মাতা/মাতার পিতা/মাতার মাতা (প্রযোজ্য ক্ষেত্রে) এর মুক্তিযোদ্ধা সার্টিফিকেট, যা যথাযথভাবে উপযুক্ত কর্তৃপক্ষ কর্তৃক স্বাক্ষরিত ও প্রতিস্বাক্ষরিত হতে হবে, এর সত্যায়িত কপি দাখিল করতে হবে।

(গ) আবেদনকারী মুক্তিযোদ্ধা/শহীদ মুক্তিযোদ্ধা পুত্র-কন্যার পুত্র-কন্যা হলে আবদেনকারী যে মুক্তিযোদ্ধা/শহীদ মুক্তিযোদ্ধার পুত্র-কন্যার পুত্র-কন্যা এই মর্মে সংশ্লিষ্ট ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান/সিটি কর্পোরেশন এর ওয়ার্ড কাউন্সিলর ও পৌরসভার মেয়র/কাউন্সিলর কর্তৃক প্রদত্ত সার্টিফিকেট আবেদনপত্রের সাথে সংযুক্ত করতে হবে।

(ঘ)চাকুরীতে নিয়োগ পেতে আগে পুলিশ ভেরিফিকেশন সম্পন্ন করতে হবে এবং পুলিশ ভেরিফিকেশন ফরমে মুক্তিযোদ্ধা/শহীদ মুক্তিযোদ্ধার পুত্র-কন্যার সম্পর্কে একটি ঘর/কলাম সংযোজন করতে হবে। যদি পুলিশ ভেরিফিকেশন রিপোর্টে ও সার্টিফিকেটের তথ্যে কোনো অমিল পরিলক্ষিত হয়, তবে নিয়োগকারী কর্তৃপক্ষ এই বিষয়ে তদন্ত করে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত গ্রহণ করবেন।

৬।প্রতিবন্ধী প্রার্থীদের ক্ষেত্রে (সমাজ সেবা কার্যালয় কর্তৃক ইস্যুকৃত) সনদপত্রের ফটোকপি প্রথম শ্রেণীর গেজেটেড কর্মকর্তা কর্তৃক সত্যায়িত করে যুক্ত করতে হবে।

৭।আবেদনপত্র প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা, জেলা পরিষদ, গাইবান্ধা বরাবরে আগামী ০২/০৮/২০২৪ খ্রিঃ তারিখ অফিস চলাকালীন সময়ে ডাকযোগে/সরাসরি পৌঁছাতে হবে। নির্ধারিত তারিখের পরে প্রাপ্ত আবেদনপত্র বাতিল বলে গণ্য হবে।

৮। খামের উপর মোটা অক্ষরে পদের নাম, জেলার নাম ও বিশেষ কোটা (যদি থাকে) লিখতে হবে এবং বামপার্শ্বে প্রেরকের/আবেদনকারীর পূর্ণ নাম ও ঠিকানা এবং ডানপার্শ্বে প্রাপক, প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা, জেলা পরিষদ, গাইবান্ধা স্পষ্ট অক্ষরে লিখতে হবে।

৯।সরকারি তফসিলীভুক্ত যে কোন ব্যাংক থেকে গাইবান্ধা এর অনুকূলে নির্বাচনী পরীক্ষার ফি বাবদ ক্রমিক নং ০১ থেকে ০৩ পর্যন্ত ২০০/- (দুইশত) টাকা এবং ক্রমিক নং ০৪ থেকে ০৫ পর্যন্ত ১০০/- (একশত) টাকার ব্যাংক ড্রাফট বা পে-অর্ডার আবেদনপত্রের সাথে অফেরৎযোগ্য করে সংযুক্ত করতে হবে। পোষ্টাল অর্ডার গ্রহনযোগ্য নয়।

১০।আবেদনপত্রের সহিত নিম্নলিখিত কাগজপত্র দাখিল করতে হবে।

(ক) প্রথম শ্রেণীর গেজেটেড কর্মকর্তা কর্তৃক শিক্ষাগত যোগ্যতা ও অভিজ্ঞতার সকল সনদপত্রের সত্যায়িত অনুলিপি।

(খ) প্রথম শ্রেণীর গেজেটেড কর্মকর্তা কর্তৃক সত্যায়িত সদ্য তোলা ০৪ (চার) কপি পাসপোর্ট সাইজের রঙ্গিন ছবি।

(গ) প্রথম শ্রেণীর গেজেটেড কর্মকর্তা কর্তৃক জাতীয় পরিচয়পত্র/জন্মনিবন্ধন সনদের সত্যায়িত ফটোকপি।

(ঘ) সংশ্লিষ্ট ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান/পৌরসভার মেয়র/সিটি কর্পোরেশন কর্তৃক প্রদত্ত নাগরিক সনদপত্র।

(ঙ) নির্ভুল ঠিকানায় প্রবেশপত্র ইস্যুর স্বার্থে আবেদনপত্রের সাথে আবেদনকারীর নাম ও ঠিকানা সম্বলিত ১০×৪.৫ সাইজের একটি ফেরৎ খাম সংযুক্ত করতে হবে।

১১। লিখিত পরীক্ষায় উত্তীর্ণ প্রার্থীদের মৌখিক পরীক্ষার সময় সকল সনদ/অনাপত্তিপত্র/কাগজপত্রাদির মূলকপি প্রদর্শনপূর্বক প্রতিটির ১টি করে to ac সত্যায়িত ফটোকপি দাখিল করতে হবে। দাখিল/উপস্থাপনযোগ্য কাগজপত্রের তালিকা নিম্নরূপ

চাকরি কি আপনার স্বপ্ন? তাহলে আপনি আমাদের ওয়েবসাইটে আসতে। আমাদের ওয়েবসাইটের নতুন নতুন চাকরির সার্কুলার প্রদান করা হয় প্রতিদিন। আমাদের এই সাইটে পিডিএফ সহকারে চাকরি সার্কুলার প্রদান করা হয়ে থাকে। আমাদের এই সাইটে এসে আপনি যদি কোন প্রকার এপ্লাই এর সমস্যা হয়। তাহলে আপনারা আমাকে কমেন্ট করতে পারেন আমরা তার সমাধান করে দেবো ইনশাআল্লাহ।

আমাদের ওয়েবসাইটে আপনারা সকল প্রকার সরকারি ও বেসরকারি চাকরি খবর পাবেন খুব সহজে এবং খুব দ্রুত সময়।

Leave a Comment